ভারতের গুরগাঁওয়ে ঘরে ঢুকে মুসলিম পরিবারের ওপর নির্যাতনে ভিডিও প্রকাশ হয়েছে। বৃহস্পতিবার (২১ মার্চ) বিকাল ৫টার দিকে গুরগাঁওয়ের ভূপ সিংহ নামক এলাকায় এক মুসলিম পরিবারের সদস্যরা এমন সন্ত্রাসবাদের শিকার হয়। খবর এনডিটিভির।

ওই মুসলিম পরিবারের ওপর সন্ত্রাসীদের অত্যাচারের ভিডিও ইতিমধ্যে সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল।

এ ঘটনায় তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন দেশটির নেট জনতা। ঘটনার তীব্র নিন্দা জানিয়ে দ্রুত বিচারের দাবি জানান দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল।

ভাইরাল ওই ভিডিওতে দেখা গেছে, প্রায় ৪০ জনের একটি দল এসে লোহার রড এবং হকি স্টিক দিয়ে পরিবারের পুরুষ সদস্যদের বেধড়ক পেটাচ্ছে। এসময় তাদেরকে না পেটাতে অনুরোধ জানান পরিবারের নারী সদস্যরা।

টাইমস অব ইন্ডিয়া জানিয়েছে, হোলির দিন ক্রিকেট খেলা নিয়ে তৈরি হওয়া বাক-বিতন্ডার জেরে এই ঘটনা ঘটেছে। কট্টরপন্থী হিন্দুত্ববাদী সংগঠনের মদতে এ নির্যাতন চালানো হয়েছে বলে দাবী জানিয়েছে ভুক্তভোগী পরিবার।

মারধরের সময় দুষ্কৃতিকারীরা ‘পাকিস্তানে যা’ বলে হুমকি দিচ্ছিল বলে জানান তারা।

গুরগাঁও পুলিশ জানিয়েছে, এ হামলা পরিকল্পিত। ঘটনাস্থলে আমরা পৌঁছার পূর্বেই দুষ্কৃতিকারীরা পালিয়ে যায়। তবে অভিযোগের ভিত্তিতে এখন পর্যন্ত ৬ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে বলে জানায় গুরগাঁও পুলিশ। ভিডিও ফুটেজ দেখে বাকিদের খোঁজ করা হচ্ছে।

গুরগাঁওয়ের এসিপি শামসের সিংহ বলেন, ‘বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় ঘটনাটি ঘটেছে। আক্রান্তেরা সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের। তারা বাড়ির বাইরে ক্রিকেট খেলার সময়ই এই ঘটনা ঘটেছে। অভিযুক্তদের সনাক্ত করার চেষ্টা চলছে।’

সম্প্রতি বিশ্বজুড়ে মুসলিম সম্প্রদায়ের ওপর বর্ণবাদীদের হামলা ও অত্যাচার বেশ পরিলক্ষিত। নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চের দুই মসজিদে শ্বেতাঙ্গ বর্ণবাদী হামলা ঘটনার বিশ্ব স্তব্ধ। সে হামলার লাইভ ভিডিওচিত্র ফেসবুকে প্রকাশ করে উগ্রপন্থী হামলাকারী ব্রেনটন টেরেন্ট।

সেই রেশ কাটতে না কাটতেই সোশ্যাল মিডিয়ায় আবারও এমন ভিডিও প্রকাশ পেল।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here