রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন এবার নিজের হাতে অস্ত্র তুলে নিলেন। কালাশনিকভ নামের নতুন একটি স্নাইপার রাইফেল হাতে নিয়ে লক্ষ্যভেদও করলেন। নির্দিষ্ট সময়ের আগেই লক্ষ্যভেদ করে বিশ্বের অন্যতম আলোচিত এই ব্যক্তি জানিয়ে দিলেন রাজনীতির মাঠের মতোই বন্দুক চালানোয় তিনি কতটা পারদর্শী।

বুধবার মস্কোতে কালাশনিকভ কনসার্ন নামের অস্ত্র প্রস্তুতকারী কোম্পানিতে যান দেশটির প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন। সেখানে অস্ত্র দেখতে গিয়ে চালিয়ে পরীক্ষা করে দেখলেন অস্ত্রগুলো। আরও একবার দিলেন নিজের যোগ্যতার প্রমাণ।

রাশিয়ার সরকারি টেলিভিশনে দেখানো হয়েছে যে পুতিন চশমা পরে এবং হেডফোন কানে গুজে গুলি ছুড়ছেন। মস্কোর অদূরে কালাশনিকভ কোম্পানির বন্দুক চালানোর স্পটে পজিশন নিয়ে তিনি সেখান থেকে গুলি ছোড়েন। লক্ষ্য প্রকৃতই যেমন থাকে ঠিক তেমন দূরত্ব থেকেই তিনি গুলি ছোড়েন। পুতিন যখন স্নাইপারের ট্রিগার চাপেন, তখন পেশাদার হিসেবেই দেখা গেছে। পুতিন পাঁচবার গুলি ছোড়েন। প্রতিবারই অর্ধেকেরও কম সময়ে সফল লক্ষ্যে পৌঁছাতে সক্ষম হন।

ভ্লাদিমির পুতিন মস্কোতে দেশটির প্যাট্রিয়ট নামে একটি সামরিক থিম পার্কের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন। সেখান থেকে মস্কোর অদূরে কালাশনিকভ কোম্পানির বন্দুক চালানোর স্পটে হাজির হন পুতিন। সেখানেই গুলি ছোড়েন।

কালাশনিকভ মূলত বিশ্বব্যাপী পরিচিত একে-৪৭ রাইফেলের প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠান। সেখানে তিনি বলেন, সিরিয়ায় অভিযান রাশিয়াকে আরও সমৃদ্ধ করেছে। সেনাবাহিনীর অস্ত্র ভান্ডার অনেক অত্যাধুনিক ও শক্তিশালী হয়েছে। বিশ্বের যেকোনো প্রথম সারির দেশের অস্ত্রকে পাল্লা দেবে রুশ। তথ্যসূত্র: এএফপি

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here