লন্ডনের কেনিংটন ওভালে চলতি বছরের ৩০ মে ইংল্যান্ড- দক্ষিণ আফ্রিকা ম্যাচ দিয়ে শুরু হবে ক্রিকেট বিশ্বকাপ। কদিন বাদে (২ জুন) দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে নিজেদের প্রথম ম্যাচে লড়বে বাংলাদেশ। বিশ্বকাপ শুরু হতে এখনো কিছুটা সময় বাকি থাকলেও কেমন হবে বিশ্বকাপের দল তা নিয়ে আলোচনা চলছেই। জনপ্রিয় ক্রিকেট বিশ্লেষক ও ধারাভাষ্যকার হার্শা ভোগলে বিশ্বকাপের জন্য নিজের পছন্দের বাংলাদেশ স্কোয়াড দিয়েছেন।

হার্শা ভোগলে সেরা ১৫ নির্বাচন করতে এগিয়েছেন সেরা ১১ কেমন হবে তা ভেবে। সেক্ষেত্রে তামিম ইকবাল, লিটন দাস ও ইমরুল কায়েস হার্শা ভোগলের পছন্দের তিন ওপেনার। বেশি বোলার খেলানোর ম্যাচে বাদ পড়বেন ইমরুল। এছাড়া এই অবস্থানে অবস্থা বিবেচনায় একাদশের অংশ হতে পারেন সৌম্য সরকারও।

মিডল অর্ডারে সাকিব আল হাসান, মুশফিকুর রহিম ও মাহমুদউল্লাহ রিয়াদদের বিকল্প নেই। মিডল অর্ডার সামলাতে পারার সক্ষমতা ও বোনাস হিসাবে উইকেটকিপিং করতে পারা মোহাম্মদ মিঠুনকে ১৫ জনের দলে রেখেছেন হার্শা ভোগলে।

হার্শা ভোগলে বেশ ভালো করেই জানেন নিকট অতীতে সাব্বির রহমান নানাবিধ বিতর্কে জড়িয়েছেন। তবে ছয়/সাতে নেমে ম্যাচের গতিপথ বদলে দিতে পারেন সাব্বির এটা মেনেই সাত নম্বরে সাব্বিরকেই খেলাতে চান হার্শা ভোগলে। তাঁর দলের অটো চয়েজ সাব্বির রহমান। বিপিএলে শুরুটা ভালো না হলেও শেষের দিকে বেশ কয়েকটা ভালো ইনিংস খেলে নিজের সামর্থ্যের প্রমাণ দিয়েছেন সাব্বির। রংপুর রাইডার্সের বিপক্ষে ৮৫, খুলনা টাইটান্সের বিপক্ষে ৪৪*, রাজশাহী কিংসের বিপক্ষে ৪৫ রান করা সাব্বির রহমান বিপিএল শেষ করেছেন চিটাগং ভাইকিংসের বিপক্ষে ৩২ রান করে।

আরেক অফস্পিনিং অলরাউন্ডার মোসাদ্দেক হোসেন সৈকতকেও দলে রেখেছেন হার্শা। সাকিব আল হাসানের মতো ক্রিকেটার দলে আছেন বলেই কিনা হার্শা ভোগলের দেওয়া স্কোয়াডে একমাত্র স্পিনার মেহেদী হাসান মিরাজ। তবে তিনি জানিয়েছেন ইংল্যান্ডের কন্ডিশনে মাঝে মধ্যেই স্পিন বোলাররা মূল নিয়ামক হয়ে ওঠেন।

অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা, মুস্তাফিজুর রহমান ও রুবেল হোসেনের সঙ্গে পেস আক্রমণে হার্শার পছন্দ মোহাম্মদ সাইফুদ্দিন।

বিশ্বকাপের জন্য হার্শা ভোগলের পছন্দের বাংলাদেশ স্কোয়াডঃ

তামিম ইকবাল, লিটন দাস, ইমরুল কায়েস, সাকিব আল হাসান, মুশফিকুর রহিম, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, সৌম্য সরকার, মোহাম্মদ মিঠুন, সাব্বির রহমান, মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত, মাশরাফি বিন মর্তুজা (অধিনায়ক), মুস্তাফিজুর রহমান, রুবেল হোসেন, মেহেদী হাসান মিরাজ ও মোহাম্মদ সাইফুদ্দিন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here