ভারতের তামিলনাড়ুতে এক হিন্দু নারী যাত্রীকে শ্লীলতাহানি থেকে বাঁচাতে গিয়ে বেধড়ক গণধোলাইয়ের শিকার হয়েছেন এক মুসলিম অটোচালক।

ঘটনা সূত্রে জানা যায়, তামিলনাড়ুর চিত্রি শহরের মুসলিম মহল্লার বাসিন্দা অটোচালক আব্দুল্লাহ। তিনি গত রবিবার (১৯ মে) সকাল ১১টার দিকে এক হিন্দু দম্পতীকে নিয়ে শহরের নামকরা একটি বিরিয়ানীর দোকানে যান। সেখানে তার যাত্রীরা পার্সেল নেয়ার সময় আব্দুল্লাহ দোকানের বাইরে অপেক্ষা করছিলেন। এই সময় এক মদ্যপ ব্যক্তি দম্পতীকে কটূক্তি করতে থাকে।

এক পর্যায়ে ঐ ব্যক্তি হিন্দু নারীর গায়ে হাত দেয়া ও শ্লীলতাহানির চেষ্টা করলে আব্দুল্লাহ বাধা দেন। এই ঘটনায় বাধা দেয়াতে মদ্যপ ব্যক্তি আব্দুল্লাহর ওপর ক্ষিপ্ত হয়ে আব্দুল্লাহকে মারধরের ঘটনা ঘটান।

এ বিষয়ে আব্দুল্লাহর স্ত্রী তাশমিন বানু বলেন, বিরিয়ানী কেনার সময় ঐ নারীকে এক মদ্যপ ব্যক্তি শ্লীলতাহানির চেষ্টা করলে আব্দুল্লাহ বাধা দেন। সে সময় শ্লীলতাহানির চেষ্টা করা ঐ ব্যক্তি আব্দুল্লার উপর ক্ষিপ্ত হয়ে যায়। পরে বাইরে থেকে তার ৩ সঙ্গীকে ডেকে এনে আব্দুল্লাহকে বেধরক মারধর করে।

এ সময় তারা আব্দুল্লাহকে শক্ত লাঠি ও রড দিয়ে মেরে মারাত্মকভাবে জখম করেন।

অপরদিকে, এই ঘটনায় থানায় অভিযোগ করতে গেলে পুলিশ বিষয়টিকে গুরুত্ব দেয়নি বলে অভিযোগ করেছেন আব্দুল্লাহর স্ত্রী তাশমিন। তিনি ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, পুলিশ অভিযোগ না নিয়ে বিষয়টিকে সামান্য মাতলামির ঘটনা বলে উড়িয়ে দিয়েছেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here